chottogram division art and craft map of bangaldesh bang

art and craft map of chattagram division

হস্ত ও কারুশিল্প মানচিত্র | চট্টগ্রাম বিভাগ

Spread the love
  • 11
    Shares

বাঙালি সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যের মূল পটভূমি হচ্ছে গ্রাম। আর  এর প্রাণবন্ত ও প্রকৃতিক রূপ আমাদের লোকজ ঐতিহ্যের মৌলিক বৈশিষ্ট্য । তাদের সরল মনের গ্রামীন কারুনৈপুন্য থেকে শুরু করে হস্তনির্মিত তাতঁ শিল্প, মৃৎশিল্প, কাসাঁ ও পিতল, বাশঁ ও বেত এবং পাট শিল্পের মত এক সুবিশাল ভান্ডারে সমৃদ্ধ আমাদের বাংলাদেশ । এই হস্ত ও কারুশিল্প মানচিত্র চট্টগ্রাম বিভাগ এর মাধ্যমে উপলদ্ধি করা যাবে প্রতিটি জেলার প্রতিটি কোন কতটা বিচিত্র এবং ঐতিহ্যে সমৃদ্ধ । তাই এই ঐতিহ্যময় হস্ত ও কারুশিল্প মানচিত্র “সমৃদ্ধময় বাংলাদেশ” ।

চট্টগ্রাম বিভাগ

প্রাচ্যের রাণী হিসেবে বিখ্যাত বাংলাদেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর হল চট্টগ্রাম । বাংলাদেশের ৭টি বিভাগের মধ্যে পাহাড়, সমুদ্রে এবং উপত্যকায় ঘেরা  ভূ-প্রাকৃতিক রূপে  চট্টগ্রামের যেমন রয়েছে  বিচিত্রতা তেমনি হস্ত ও কারুশিল্পে রয়েছে চট্টগ্রাম বিভাগের প্রতিটি জেলায়  নিজ নিজ ঐতিহ্যগত বৈশিষ্ট্য।  

” স্বদেশী পণ্য গ্রহণ কর আর বিদেশী পণ্য বর্জন কর” এই শ্লোগানের ওপর ভিত্তি করেই তৎকালীন সময়ে যে  খাদিশিল্পের উৎপত্তি তা চট্টগ্রাম বিভাগের কুমিল্লা জেলাকে কেন্দ্র করে । তখন খাদি কাপড় তৈরি হতো রাঙ্গামাটির তূলা থেকে । এবং  এই খাদি কাপড়  কুমিল্লার খাদি হিসাবে পরিচিতি লাভ করে । তেমনই কুমিল্লার মৃৎশিল্পের বাংলার লোকশিল্পের অন্যতম ঐতিহ্যের  একটি । ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঁশ-বেত শিল্প, লক্ষ্মীপুর জেলা  শীতল পাটি,   কক্সবাজার অঞ্চলের ঝিনুক শিল্প এবং পার্বত্য চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী ‘কোমর তাঁত’ । যা তাদের নিজস্বতার পরিচয় দেয় ।


চট্টগ্রাম বিভাগের জেলারগুলোর ঐতিহ্যময় হস্ত ও কারুশিল্প মানচিত্র


হস্ত ও কারুশিল্প মানচিত্র | চট্টগ্রাম বিভাগ

চট্টগ্রাম বিভাগের  ঐতিহ্যময় হস্ত কারুশিল্প

ঝিনুক শিল্প 

বাঁশ-বেত শিল্প

মৃৎশিল্প

কুমিল্লার খাদি 

শীতল পাটি 


কুমিল্লার খাদি

কুমিল্লার খাদি 

প্রাচীনকাল থেকে এই উপ-মহাদেশে হস্তচালিত তাঁত শিল্প ছিল জগদ্বিখ্যাত । একটি পেশাজীবী সম্প্রদায় তাঁত শিল্পের সাথে তখন জড়িত ছিলেন।  তাদেরকে স্থানীয় ভাষায় বলা হতো ‘যুগী’ বা ‘দেবনাথ’। বৃটিশ ভারতে গান্ধীজীর অসহযোগ আন্দোলনের সময়কালে ”স্বদেশী পণ্য গ্রহণ কর আর বিদেশী পণ্য বর্জন কর”  এই শ্লোগানের ওপর ভিত্তি করেই তৎকালীন সময়ে খাদিশিল্পের উৎপত্তি হয় এবং সে সময় খাদি শিল্প দ্রুত বিস্তার লাভ ও জনপ্রিয়তা অর্জন করে। তখন খাদি কাপড় তৈরি হতো রাঙ্গামাটির তূলা থেকে  এবং খাদি কাপড়  কুমিল্লার খাদি হিসাবে পরিচিতি লাভ করে ।

কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলার মাধাইয়া, কলাগাঁও, কুটুম্বপুর, হারং, বানিয়াচং, ভোমরাকান্দি, বেলাশ্বর, মধ্যমতলা, বাড়েরা, গোবিন্দপুর, ছয়ঘড়িয়া, হাড়িখোলা  গ্রামে  তৈরি হচ্ছে খাদি কাপড়।

বাঁশ-বেত শিল্প

বাঁশ-বেত শিল্প

বেত বাংলাদেশের একটি উল্লেখযোগ্য বনজ সম্পদ। একজাতীয় লতানো বা সোজা বেয়ে ওঠা পাম। বাংলাদেশেও অনেক এলাকায় তা রতন নামেই পরিচিত। তেমনই  বাঁশ শিল্প বাংলাদেশের একটি লোকশিল্প । বাংলাদেশের নিজস্ব শিল্প-সংস্কৃতির প্রতীক ।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া উপজেলার মোগড়া ইউনিয়নের দরুইন গ্রাম বাঁশ ও বেতের জিনিসপত্র তৈরীর জন্য খ্যাত । এছাড়া খাগড়াছড়ির দীঘিনালা, পানছড়িতে এ শিল্পকে ধারন করতে দেখা যায়

মৃৎশিল্প

মৃৎশিল্প

“মৃৎ”শব্দের অর্থ মৃত্তিকা  আর “শিল্প” বলেত এখানে সুন্দর ও সৃষ্টিশীল বস্তুকে বোঝানো হয়েছে । মাটি দিয়ে দিয়ে তৈরি সব শিল্পকে কর্মকেই মৃৎ শিল্প বলা হয় ।  ঐতিহ্যের রূপকার হলেন কুমোর বা কুমার শ্রেণীর পেশাজীবীরা।  এরা সাধারনত হিন্দু সম্প্রদায়ভুক্ত, তারা ‘পাল’ পদবীতে পরিচিত

ফেনী জেলা ছাগলনাইয়া উপজেলার রাধানগর ইউনিয়নের মানিক গ্রাম এবং  কুমিল্লার বিজয়পুর  বারপাড়া, টেগুরিয়াপাড়া এবং নোয়াপাড়া এবং  চাঁদপুর ফরিদগঞ্জের আইটপাড়া গ্রাম  ঐতিহ্যবাহী মৃৎশিল্প সাথে জড়িত । তারা তৈরি করে থাকেন  গৃহস্থালি তৈজসের মধ্যে কলসি, হাঁড়ি, জালা, সরাই বা ঢাকনা, শানকি, থালা, কাপ, বদনা, ধূপদানি, মাটি নির্মিত নানা খেলনা এবং ফল, পশু-পাখি ইত্যাদি  । 

শীতল পাটি

শীতল পাটি 

শীতল পাটি এক ধরনের মেঝেতে পাতার আসন। এটি বাংলাদেশের একটি ঐতিহ্যগত কুটির শিল্প। যেখানে আবহমান গ্রাম বাংলার প্রকৃতি, রূপ এবং সৌন্দর্যকে কারুকাজের মাধ্যমে ফুটিয়ে তোলা হয়। লক্ষ্মীপুর জেলা এবং চাঁদপুর জেলার কচুয়া উপজেলার কড়ইয়া গ্রাম এসব পাটির জন্য বিখ্যাত । 

ঝিনুক শিল্প

ঝিনুক শিল্প 

ঝিনুক শিল্প হলো এমন একটি শিল্প যা সামুদ্রিক প্রাণি ঝিনুক নির্ভর ।  বাংলাদেশের ৬৯,৯০০ বর্গকিলোমিটার সামুদ্রিক জলরাশিতে প্রায় ৩০০ প্রজাতির ঝিনুক পাওয়া যায় ।  ঝিনুক শিল্প  বাংলাদেশের একটি সম্ভাবনাময় শিল্প। বাংলাদেশের কক্সবাজার অঞ্চল ঝিনুক চাষের জন্য অত্যন্ত উপযোগী।

ঝিনুক  শিল্প   বিভিন্ন  ভাবে শিল্প বিস্তার করতে পারে । যেমনঃ খাদ্য, রত্ন, সহায়ক, রসায়ন প্রভৃতি খাতে এটি ব্যবহৃত হয় । এছাড়া শামুক-ঝিনুকে তৈরি হয় মেয়েদের বিভিন্ন অলঙ্কার, ঘর সাজানোর দ্রব্যাদি, চাবির রিংসহ আরও অনেক কিছু। 


ঐতিহ্যময় হস্ত ও কারুশিল্প পূর্ণাঙ্গ মানচিত্র দেখতে ক্লিক করুন

In addition, traditional handicraft maps of other Division | অন্যান্য বিভাগের ঐতিহ্যময় হস্ত ও কারুশিল্প মানচিত্র :

ঢাকা বিভাগ  >>>

চট্টগ্রাম বিভাগ >>>

খুলনা বিভাগ >>>

বরিশাল বিভাগ >>>

ময়মনসিংহ বিভাগ >>>

রংপুর বিভাগ >>>

রাজশাহী বিভাগ >>>

সিলেট বিভাগ >>>


চট্টগ্রাম বিভাগ

১১ টি জেলা নিয়ে চট্টগ্রাম বিভাগ গঠিত ।  চট্টগ্রাম বিভাগের জেলাগুলো হল :


Spread the love
  • 11
    Shares

Leave a Reply

%d bloggers like this: